Mirage Movie Review

নেটফ্লিক্স কতৃক নির্মিত এক অনবদ্য মাস্টারপিস। স্প্যানিশ ইন্ডাস্ট্রি এমনিতেই অনেক স্মার্ট। স্প্যানিশ মুভিতে দারুণ এক ব্যাকগ্রাউন্ড সর্বদা লক্ষ্য করা যায়। তার উপর থ্রিলারের স্বাদ। সব মিলিয়ে স্প্যানিশ ইন্ডাস্ট্রির বড় ফ্যান আমি।

Mirage Movie Review
Mirage Movie Review

২০১৮ সালে রিলিজ হয়েছিলো Mirage মুভিটি। দারুণ এক ড্রামা থ্রিলার সাই-ফাই এর স্বাদ নিতে এই মুভিটি দেখা আবশ্যক। ডিরেক্টর ছিলেন Oriol Paulo. তিনি ইতিপূর্বে The Body, The Invisible Guest, Julia’s Eyes, Code 60, Eco ইত্যাদি দারুণ সব স্প্যানিশ মুভির রাইটার ছিলেন। উক্ত মুভিগুলোর মতো Mirageও একটি স্মার্ট থ্রিলার সাই-ফাই মুভি।

// ⭕ #MIRAGE (2018) স্প্যানিশ মুভি রিভিউ ⭕ //
🎥 মুভি ইনফো 🎥
✅ Movie: Mirage (2018).
✅ Spanish Name: Durante La Tormenta.
✅ Genre: Sci-Fi/Thriller/Drama.
✅ Director: Oriol Paulo.
✅ Cast: Adriana Ugarte, Alvaro Morte, Chino Darin, Luna Fulgencio & More.
✅ Language: Spanish (Hindi Dubbed Available).
✅ Subtitles: Arabic, Bangla, English & More Languages.
🎫 IMDb – 7.5/10
🍅 R.Tomatoes – 67% Fresh
⭐ Personal Rate – 9.5/10 ❤

Visit CBN – Cox’s Bazar News Now for all kind of News Update in Cox’s Bazar. CBN – Cox’s Bazar News Now presents you the latest news of Cox’s Bazar. You can also visit Cox’s Bazar News, Eidgah NewsUkhiya NewsTeknaf NewsRamu NewsChakaria NewsMoheskhali NewsPekua NewsKutubdia News for Latest news of Cox’s Bazar District. Cox’s Bazar Hotel Booking offers you Hotel Booking in Cox’s Bazar

╚○▻ মুভি শর্ট রিভিউ ◅○╝
⚠️⚠️⚠️স্পয়লার এলার্ট⚠️⚠️⚠️

⭐ মুভিটি শুরু হয় রকস্টার হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করা এক বালকের মাধ্যমে। নাম তার নিকো। কোন এক রাতে সে তার টিভি এবং ক্যামেরার মাধ্যমে তার গাওয়া গান ঘরে বসে রেকর্ড করছিলেন। এরই মধ্যে প্রতিবেশীর বাসা হতে শোরগোল শোনা যায়। সে ভয়ে ভয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখতে পায়, সে বাড়ির কর্তী মেঝেতে পরে আছে। তার স্বামী তাকে খুন করেছে। সে দেখে ভয়ে পালিয়ে যায় এবং দৌড়ে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় গাড়ির সাথে এক্সিডেন্ট হয়ে মারা যায়। এটি ছিল ১৯৮৯ সাল এবং ঐতিহাসিক একটি ঝড়ের রাত।

এর পর সোজা ২০১৪ সালে চলে আসে টাইমলাইন। দেখা যায় যে, নিকোর বাড়িতে ২০১৪ সালে এক দম্পতি আসে তাদের ছোট মেয়ে গ্লোরিয়া কে নিয়ে। হাজব্যান্ডের নাম ডেভিড এবং ওয়াইফ এর নাম ভিরা। তারা স্টোররুম হতে সেই টিভি আর ক্যামেরাটা খুঁজে পায়। আগ্রহবসত তারা সেটা প্লে করে। নিকোর গান শুনতে পায়। ওই সময় ঠিক ১৯৮৯ সালের মতোই ঝড় ঘনিয়ে আসছিলো। ঠিক যেনো ১৯৮৯ সালের পুনরাবৃত্তি। তারা ৩জন টিভিতে সেই ক্যাসেটের রেকর্ড করা গান শোনা অবস্থায় ক্যাসেট খুলে ফেলে। কিন্তু, আশ্চর্যজনকভাবে ক্যাসেট খুলে ফেলার পরেও টিভিতে নানা ভিডিও চলছিলো। দেখানো হচ্ছিলো ১৯৮৯ সালের সেই ঝড়ের রাতের সংবাদ।

ঠিক ওই রাতেই ভিরা উঠে দেখে টিভি চলছে। টিভিতে নিকো-কে দেখা যাচ্ছিলো আবার নিকোও ভিরাকে দেখছিলো। তারা একে অপরের সাথে কথা বলছিলো। ভিরা নিকোর মৃত্যুর কারণ জানতো। তাই ভিরা তখন নিকো-কে বাহিরে যেতে মানা করলো। কিন্তু, নিকো শুনলো না। সে বেরিয়ে গেলো। এদিকে ভিরাও চেচামেচি করে অস্থির।

এর পরের সিনে ভিরা নিজেকে হাসপাতালে আবিষ্কার করে। মজার ব্যাপার এই যে, তার পরিচয় একদমই পাল্টে গিয়েছে। তার মেয়ের কোন অস্তিত্ব-ই পাচ্ছেনা খুঁজে। তার স্বামী তাকে চিনেই না। তার স্বামীর সন্তান এবং স্ত্রী অন্য কেউ।

তাহলে তার পরিচয় কি? তার মনে যেসব স্মৃতি রয়েছে, সেগুলো কি মিথ্যে? কিভাবে ফিরে পাবে তার পরিচয় আর তার মেয়েকে?

ধাধার ঘোরে ফেলে দিবে আপনাকে। নেই কারো পরিচয়, নেই কারো অস্তিত্ব। কেন সব পরিবর্তন হয়েছে? আর এটি ঠিক হবেই বা কিভাবে?

যারা এখনো এই মুভির স্বাদ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন অবশ্যই তারা দেখে নিবেন দারুণ এই সাই-ফাই/থ্রিলার মুভিটি!!!☣️☣️☣️☣️☣️